1. rezaulalam000@gmail.com : সময় বাংলার :
  2. jmitsolution24@gmail.com : JM IT SOLUTION : JM IT SOLUTION
খুলনা বিভাগের ৬ জেলায় মৎস্যখাতে ক্ষতি ৩শ’কোটি টাকা । | সময় বাংলার
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১২:২৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম ... ||
আগামী ২০ জুলাই নতুন ভাষানচর জুনিয়র ফুটবল টুর্ণামেন্ট ফাইনাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে শ্রীনগরে ব্র্যাকের ইউনিয়ন  কর্মশালা সময় বাংলার “অন লাইন পোর্টালে খবর প্রকাশের পর ড্রেজার উচ্ছেদ দুই লাখ টাকা জরিমানা মুন্সীগঞ্জ জেলার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ নির্বাচিত হলেন মুজাহিদুল ইসলাম সিরাজদিখানে বদলিজনিত বিদায় উপলক্ষে সংবর্ধনা ঢাকা-বেইজিং চুক্তি স্বাক্ষরের একটি মুন্সিগঞ্জের নাটেশ্বর আর্কিওলজিকাল সাইট পার্ক প্রকল্প শ্রীনগরে অনূর্ধ্ব-১৭ জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত রাজশাহীর বাগমারায় অনলাইন জুয়ার কালো থাবায় নিঃস্ব হচ্ছে তরুণ-যুব সমাজ জাসদ নেতা বীরমুক্তিযোদ্ধা শফিউর রহমান শফির মুক্তি দাবী রাজশাহীতে বিক্ষোভ শ্রীনগরে যাত্রীবাহী সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের নতুন শাখা উদ্ধোধন পাবনায় উপজেলা আ.লীগ সম্পাদকের বিরুদ্ধে হত্যা মামলার প্রতিবাদে অবরোধ বিক্ষোভ -মানববন্ধন সারা দেশে চলমান আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা শিক্ষার্থীদের শ্রীনগরে ড্রেজার দিয়ে কৃষি জমি ভরাটের মহোৎসব  সিরাজদিখানে দুই পক্ষের সংঘর্ষে টেটাবিদ্ধ ৯ আহত ২০ প্রশ্নফাঁসে নিজের সংশ্লিষ্টতা থাকলে পদত্যাগ করার ঘোষণা দিয়েছেন পিএসসি চেয়ারম্যান বুধবার সারাদেশে ‘বাংলা ব্লকেড’ সিরিয়াল কিলার রসু খাঁর ফাঁসির আদেশ বহাল দুর্নীতি একটি দেশের এগিয়ে যাওয়ার পথে সবচেয়ে বড় অন্তরায় কোটা পদ্ধতি বাতিলের সিদ্ধান্ত অবৈধ ঘোষণা করে হাইকোর্টের দেয়া রায়ের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে শুনানি আগামীকাল প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন টঙ্গীবাড়ীতে ইউপি চেয়ারম্যানকে গুলি করে হত্যা কোটা বাতিলের দাবিতে উত্তাল সারাদেশ শ্রীনগরে সনাতন ধর্মালম্বীদের মহোৎসব রথযাত্রা অনুষ্ঠিত সাংবাদিক আলামিন হোসেনের পিতার মৃত্যুতে রাসিক মেয়রের শোক প্রকাশ শ্রীনগরে সাংবাদিকের উপর হামলা ও মিথ্যা অভিযোগের প্রতিবাদে মানববন্ধন পদ্মা সেতুর জন্য বাংলাদেশ বিশ্বে সম্মান পেয়েছে : প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগ করছেন ‍ঋষি সুনাক স্ট্রোক করেছেন নাফিস ইকবাল,এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে আনা হচ্ছে ঢাকায় কিয়ার স্টারমার যুক্তরাজ্যের নতুন প্রধানমন্ত্রী যুক্তরাজ্যে লেবার পার্টির নিরঙ্কুশ জয়

খুলনা বিভাগের ৬ জেলায় মৎস্যখাতে ক্ষতি ৩শ’কোটি টাকা ।

  • সময় বাংলার || বৃহস্পতিবার, ২৮ মে, ২০২০, ৯.৩১ পিএম
Somoybanglar 6

নিজস্ব প্রতিবেদক সময় বাংলার ।

প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড় আম্পানের আঘাতে খুলনা বিভাগের ৬টি জেলার ১৯৭টি ইউনিয়নে মৎস্যখাতে কমপক্ষে ২৮৪ কোটি ৮ লাখ ৮৪ হাজার টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বাঁধ ভেঙে প্লাবিত হয়ে মাছ বেরিয়ে গেছে মৎস্যঘের, পুকুর ও নদী থেকে। ভেঙে গেছে মৎস্য প্রকল্পগুলোর অবকাঠামো। ভয়াবহ ক্ষতির মুখে পড়েছেন সাদা মাছ, চিংড়ি, কাঁকড়া ও কুচিয়া উৎপাদনকারীরা। বিভাগের ক্ষতিগ্রস্ত ৬টি জেলার মধ্যে খুলনায় ৯৬ কোটি ৭২ লাখ ৪৩ হাজার টাকার, বাগেরহাটে ৫ কোটি ৭১ লাখ ২৭ হাজার টাকার, সাতক্ষীরায় ১৭৬ কোটি ৪৫ লাখ ৪০ হাজার টাকার, ঝিনাইদহে ২ কোটি ৪৯ লাখ ৫০ হাজার টাকার, চুয়াডাঙ্গায় ২ কোটি ৬১ লাখ ৯৪ হাজার টাকার ও মাগুরায় ৮ লাখ ৩০ হাজার টাকার ক্ষতি হয়েছে।

মৎস্য অধিদফতর খুলনা বিভাগীয় অফিস সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে। খুলনা বিভাগীয় মৎস্য অধিদফতরের উপপরিচালক নারায়ণ চন্দ্র মণ্ডল বলেন, আম্পানের আঘাতে খুলনা বিভাগের ৩১টি উপজেলায় ৬৪ কোটি ৫ লাখ ১৫ হাজার টাকার সাদা মাছ, ১৮৮ কোটি ৮ লাখ ৭৪ হাজার টাকার চিংড়ি মাছ, ৩ কোটি ১৮ লাখ ৬০ হাজার টাকার সাদা মাছের পোনা, ১৫ কোটি ৯০ লাখ ৮৫ হাজার টাকার চিংড়ি মাছে পোনা (পিএল), ১ কোটি ৮৩ লাখ ৭৫ হাজার টাকার কুচিয়া ও কাঁকড়া এবং ১০ কোটি ৯৪ লাখ টাকার অবকাঠামোগত ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

বিভাগীয় মৎস্য অফিস সূত্রে জানা গেছে, আম্পানের কারণে ৭টি বিভাগে পানিতে প্লাবিত হয়েছে ১ হাজার ৫৯২ দশমিক ১২ হেক্টর জমিতে থাকা ৮ হাজার ৯২৮টি পুকুর ও দিঘি। এরমধ্যে কুচিয়া ও কাঁকড়ার চাষ হতো ৬১৩টি পুকুর ও দিঘিতে। এছাড়াও ২৪ হাজার ৭৬২ দশমিক ৩৫ হেক্টর জমিতে থাকা ২২ হাজার ২৪৭টি ঘের ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এর ফলে ৩ হাজার ১৬০ দশমিক ১২ মেট্রিক টন সাদা মাছ ও ১ কোটি ৭৭ লাখ ৮২ হাজার পিস সাদা মাছের পোনা, ৩ হাজার ৬৩৫ দশমিক ৮৯ মেট্রিক টন চিংড়ি ও ২৯ কোটি ৩৮ লাখ পিস চিংড়ির পোনা (পিএল) এবং ৪২ দশমিক ৯৫ মেট্রিক টন কাঁকড়া ও কুচিয়া ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। খুলনা জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. আবু ছাঈদ বলেন, ঘূর্ণিঝড় আম্পানের আঘাতে খুলনার ৫টি উপজেলার মৎস্যখাতে ৯৬ কোটি ৭২ লাখ ৪৩ হাজার টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এর মধ্যে কয়রায় ৫১ কোটি ২৩ লাখ ৭০ হাজার টাকার, দাকোপে ২ কোটি ৫৯ লাখ ৯৮ হাজার টাকার, পাইকগাছায় ৭ কোটি ৯৩ লাখ ৭৫ হাজার টাকার, ডুমুরিয়ায় ২৬ কোটি ৭২ লাখ ৫০ হাজার টাকার ও বটিয়াঘাটায় ৮ কোটি ২২ লাখ ৫০ হাজার টাকার ক্ষতি হয়েছে। তিনি আরও বলেন, আম্পানের আঘাতে খুলনার ৫ উপজেলায় ২৯ কোটি ২৫ লাখ ৯ হাজার টাকার সাদা মাছ, ৫৯ কোটি ৪২ লাখ ৬ হাজার টাকার চিংড়ি মাছ, ১ কোটি ৪৫ লাখ টাকার সাদা মাছের পোনা, ১ কোটি ২৮ লাখ টাকার চিংড়ি মাছে পোনা (পিএল), ৯৪ লাখ ৯৫ হাজার টাকার কুচিয়া এবং ৪ কোটি ৩৬ লাখ টাকার অবকাঠামোগত ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। খুলনা জেলা মৎস্য অফিস সূত্রে জানা গেছে, লোনা পানিতে প্লাবিত হয়ে ৬২৫ দশমিক ৮১ হেক্টর জমিতে থাকা ৮ হাজার ৯৬টি পুকুর ও দিঘি (কুচিয়া ও কাঁকড়ার ২৪০টিসহ), ৮ হাজার ৫৭৭ দশমিক ৮ হেক্টর জমিতে থাকা ৬ হাজার ৮৬৬টি সাদা মাছ ও চিংড়ি ঘের ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এর ফলে ১ হাজার ১৭৬ দশমিক ৯ মেট্রিক টন সাদা মাছ ও ১ কোটি ৫ লাখ পিস সাদা মাছের পোনা, ১ হাজার ৪৭ দশমিক ৯ মেট্রিক টন চিংড়ি ও ১ কোটি ৪০ লাখ পিস চিংড়ির পোনা (পিএল) এবং সাড়ে ১৭ মেট্রিক টন কাঁকড়া ও কুচিয়া ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। খুলনা বিভাগীয় পোনা ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও পাইকগাছা উপজেলার পুরস্কারপ্রাপ্ত ঘের ব্যবসায়ী গোলাম কিবরিয়া রিপন বলেন, গত এক বছর ধরে দুর্যোগের কবলে থাকলেও করোনার প্রভাব মারাত্মক। আর আম্পানের আঘাতে সব স্বপ্নেরই সলিল সমাধি হয়েছে।

পাইকগাছার চিংড়ি ব্যবসায়ী লিটন পরামানিক বলেন, করোনার প্রভাবে মাছ রফতানি বন্ধ। দেশের বাজারেও ক্রেতা নেই। তাই বেকার অবস্থায় দিন কাটছে। কয়রা বাগালি ইউনিয়নের বাগদা চাষি মফিজুল ইসলাম জানান, গরমের কারণে ঘের-পুকুরে চিংড়ি মরে। গরমে ঘেরে পানি কমে, ফের ঝড় বৃষ্টিতে ঘের প্লাবিত হলো। তার ওপর পোনা ও খাবার সংকট, কর্মচারীদের বেতন সব মিলিয়ে বড় ধরনের লোকসানে পড়েছে খামারিরা। এদিকে, আম্পান ঝড়ের কারণে খুলনার কয়রা উপজেলার  ২৪টি পয়েন্ট বেড়িবাঁধ ভেঙে গেছে। স্থানীয় অধিবাসী ও প্রশাসনের চেষ্টায় এখনও সেই বাঁধ পুরোপুরি মেরামত করা সম্ভব হয়নি। ঝড় শেষ হওয়ার ৮দিন পর ২১টি পয়েন্ট মেরামত সম্ভব হয়েছে। বাকি এখনও তিনটি পয়েন্ট। তবে পুরো এলাকা লোনা পানিতে প্লাবিত হওয়ায় এই এলাকার ঘেরে ও পুকুর-দিঘিতে যত মাছ ও পোনা ছিল তা সবই মিশে গেছে নদীর পানিতে। অবশ্য সেনাবাহিনী এসব এলাকায় বাঁধের বিষয়ে এখন জরিপ করছে। অচিরেই সেখানে স্থায়ী বাঁধের কাজ শুরু হতে পারে। একই অবস্থা সাতক্ষীরার উপকূলীয় এলাকাগুলোতেও। এই জেলারও উপকূলবর্তী বেশ কিছু এলাকায় ভেরিবাঁধের যেসব পয়েন্ট ভেঙে গেছে সেগুলোও এখনও পুরোপুরি মেরামত করা সম্ভব হয়নি।

Li

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন ||

আরও সংবাদ ||

                            @  SOMOYBNGLAR # কোনো লেখাছবিভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য

.