1. rezaulalam000@gmail.com : সময় বাংলার :
  2. jmitsolution24@gmail.com : JM IT SOLUTION : JM IT SOLUTION
বাজেট উপস্থাপন নিয়ে মঈন খানের প্রশ্ন ? | সময় বাংলার
রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ০৯:৪৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম ... ||
আগামী ২০ জুলাই নতুন ভাষানচর জুনিয়র ফুটবল টুর্ণামেন্ট ফাইনাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে শ্রীনগরে ব্র্যাকের ইউনিয়ন  কর্মশালা সময় বাংলার “অন লাইন পোর্টালে খবর প্রকাশের পর ড্রেজার উচ্ছেদ দুই লাখ টাকা জরিমানা মুন্সীগঞ্জ জেলার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ নির্বাচিত হলেন মুজাহিদুল ইসলাম সিরাজদিখানে বদলিজনিত বিদায় উপলক্ষে সংবর্ধনা ঢাকা-বেইজিং চুক্তি স্বাক্ষরের একটি মুন্সিগঞ্জের নাটেশ্বর আর্কিওলজিকাল সাইট পার্ক প্রকল্প শ্রীনগরে অনূর্ধ্ব-১৭ জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত রাজশাহীর বাগমারায় অনলাইন জুয়ার কালো থাবায় নিঃস্ব হচ্ছে তরুণ-যুব সমাজ জাসদ নেতা বীরমুক্তিযোদ্ধা শফিউর রহমান শফির মুক্তি দাবী রাজশাহীতে বিক্ষোভ শ্রীনগরে যাত্রীবাহী সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের নতুন শাখা উদ্ধোধন পাবনায় উপজেলা আ.লীগ সম্পাদকের বিরুদ্ধে হত্যা মামলার প্রতিবাদে অবরোধ বিক্ষোভ -মানববন্ধন সারা দেশে চলমান আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা শিক্ষার্থীদের শ্রীনগরে ড্রেজার দিয়ে কৃষি জমি ভরাটের মহোৎসব  সিরাজদিখানে দুই পক্ষের সংঘর্ষে টেটাবিদ্ধ ৯ আহত ২০ প্রশ্নফাঁসে নিজের সংশ্লিষ্টতা থাকলে পদত্যাগ করার ঘোষণা দিয়েছেন পিএসসি চেয়ারম্যান বুধবার সারাদেশে ‘বাংলা ব্লকেড’ সিরিয়াল কিলার রসু খাঁর ফাঁসির আদেশ বহাল দুর্নীতি একটি দেশের এগিয়ে যাওয়ার পথে সবচেয়ে বড় অন্তরায় কোটা পদ্ধতি বাতিলের সিদ্ধান্ত অবৈধ ঘোষণা করে হাইকোর্টের দেয়া রায়ের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে শুনানি আগামীকাল প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন টঙ্গীবাড়ীতে ইউপি চেয়ারম্যানকে গুলি করে হত্যা কোটা বাতিলের দাবিতে উত্তাল সারাদেশ শ্রীনগরে সনাতন ধর্মালম্বীদের মহোৎসব রথযাত্রা অনুষ্ঠিত সাংবাদিক আলামিন হোসেনের পিতার মৃত্যুতে রাসিক মেয়রের শোক প্রকাশ শ্রীনগরে সাংবাদিকের উপর হামলা ও মিথ্যা অভিযোগের প্রতিবাদে মানববন্ধন পদ্মা সেতুর জন্য বাংলাদেশ বিশ্বে সম্মান পেয়েছে : প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগ করছেন ‍ঋষি সুনাক স্ট্রোক করেছেন নাফিস ইকবাল,এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে আনা হচ্ছে ঢাকায় কিয়ার স্টারমার যুক্তরাজ্যের নতুন প্রধানমন্ত্রী যুক্তরাজ্যে লেবার পার্টির নিরঙ্কুশ জয়

বাজেট উপস্থাপন নিয়ে মঈন খানের প্রশ্ন ?

  • সময় বাংলার || শুক্রবার, ১২ জুন, ২০২০, ৮.২০ এএম
images 3

নিজস্ব প্রতিবেদক সময় বাংলার:

জাতীয় সংসদে ভিডিও প্রজেক্শনে ২০২০-২১ সালের প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপনার সমালোচনা করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান। গত বৃহস্পতিবার বিকেলে তাৎক্ষণিক এক প্রতিক্রিয়ায় অর্থমন্ত্রীর পরিবর্তে তৃতীয় কোনো ‘ব্যক্তির’ কণ্ঠে বাজেট উপস্থাপন নিয়ে তিনি প্রশ্ন তোলেন।

বিএনপির এ জ্যেষ্ঠ নেতা বলেন, ‘অবাক হয়ে লক্ষ্য করেছি, তৃতীয় কোনো ব্যক্তি টেলিভিশনের পর্দায় বাজেটটি বর্ণনা করেছেন, মাননীয় অর্থমন্ত্রীর বক্তব্যের ফাঁকে ফাঁকে। এমন কি এ-ও দেখা গেছে অন্যের দেওয়া বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে মাননীয় অর্থমন্ত্রী এক পর্যায়ে নিজেই টেবিল চাপড়াচ্ছেন। তাহলে একজন দর্শকের মনে প্রশ্ন জাগে এই বাজেট কী মাননীয় অর্থমন্ত্রী নিজে উপস্থাপনা করেছে না অন্য কেউ।’

২০২০-২১ অর্থ বছরের প্রস্তাবিত বাজেট ’৮০ দশকের স্বৈরাচার এরশাদ সরকারের সময়ে দেউলিয়া বাজেটগুলোর কথাই মনে করিয়ে দেয় বলেও মন্তব্য করেছেন বিএনপির এই নেতা। প্রস্তাবিত বাজেটের বিশ্লেষণ করতে গিয়ে মঈন খান বলেন, ‘পুরো বাজেটের এক তৃতীয়াংশই হলো ঘাটতি যা জিডিপির ৬ শতাংশ। যেখানে বিগত প্রায় ৩০ বছর ধরে প্রত্যেকটি সরকার এই প্রচেষ্টাই করেছে- বাজেট যতদূর সম্ভব স্বয়ংসম্পূর্ণ ও স্বনির্ভর করা যায়। কেবলমাত্র দেশি-বিদেশি ঋণনির্ভর হয়ে বাজেটে শুঙ্করের ফাঁকি দিয়ে এই দুঃসময়ে দরিদ্র মানুষের জীবন ও জীবিকার সমাধান আগামী বাজেটে হবে-এটা বিশ্বাসযোগ্য নয়।’

বিএনপির এই স্থায়ী কমিটির সদস্য বলেন, ‘এই সংকটকালে সরকার একটি বাজেট দিয়েছে যে বাজেট থেকে দেশের ১৭ কোটি মানুষের প্রত্যাশা ছিল অনেক। আমরা লক্ষ্য করলাম যে, অনেক বড় বড় প্রতিশ্রুতি এই বাজেটে থাকার পরেও এটা যেন একটা কথার ফুলঝুড়ি।’

বাজেটে কালো টাকা সাদা করার সুযোগের বিরোধিতা করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এই সাবেক শিক্ষক বলেন, ‘বছরের পর বছর নামমাত্র কর দিয়ে অবৈধ সম্পদকে বৈধ করার সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। এর ফলশ্রুতিতে দেশের অর্থনীতির কী উত্তরণ হয়েছে তা এখনো পর্যন্ত কারও কাছে বোধগম্য নয়। এখন সময় এসেছে এই ধরনের অবৈধ সম্পদ বাজেয়াপ্ত করে এই বিপদের সময়ে দেশের করোনা আক্রান্ত মানুষের স্বাস্থ্য সেবায় বিনিয়োগ করা।’

করোনা পরিস্থিতিতে সরকারের রাজস্ব আদায় নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘বাজেটের বিরাট ঘাটতি কিভাবে পুরণ হবে তার সুনির্দিষ্ট কোনো হিসাব বাজেটে নেই। আমরা বর্তমান বছরে দেখছি সরকারের রাজস্ব আয় ৩০ জুন নাগাদ প্রায় অর্ধেকে নেমে যেতে পারে এবং আসছে বছরে করোনা পরিস্থিতির যে দীর্ঘমেয়াদী ফলশ্রুতি তাতে করে আগামী বছরেও রাজস্ব আদায় পরিস্থিতির এমন কোনো উন্নয়ন সাধিত হওয়ার লক্ষণ নেই।’

আবদুল মঈন খান বলেন, ‘এই অবস্থায় বাস্তবতার পরিপ্রেক্ষিতে বাজেটের মূল লক্ষ্য যেটা হওয়া উচিত ছিল তা হলো- এক) রাজস্ব ব্যয় সচেতনভাবে কমিয়ে আনা এবং সকল প্রকার অপ্রয়োজনীয় ব্যয় সম্পুর্ণ বন্ধ করে দেওয়া এবং দুই) ২ লক্ষ ৫ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন বাজেটকে (এডিপি) সরাসরি অর্ধেকে নামিয়ে নিয়ে আসা। অনেকে প্রশ্ন করতে পারেন উন্নয়ন ব্যয় কমিয়ে আনলে কর্মসংস্থান ও জীবিকার সমস্যা হতে পারে। কিন্তু বাস্তবে এই যুক্তি ধোপে টিকে না।’

এর ব্যাখ্যা দিয়ে মঈন খান আরও বলেন, ‘এডিপির ভেতরেও যেসব ব্যয়ের তালিকা দেওয়া হয়েছে তা সবই বিপুলভাবে বর্ধিত হারে। আমরা অতীতে দেখেছি যে একটি বালিশের মূল্য ৬ হাজার টাকা, একটি পর্দার মূল্য ৮৪ হাজার টাকা। আইএমইডি’র মাধ্যমে যৌক্তিকীকরণ করলে উন্নয়ন বাজেট থেকে যে এক লক্ষ হাজার কোটি টাকা উদ্বৃত্ত হয়ে আসবে সেটা দিয়ে আমরা আগামী বাজেটে খুব সহজে কোভিড-১৯ ক্ষতিগ্রস্ত কোটি কোটি কর্মহীন নারী-পুরুষ, প্রান্তিক কৃষক, বৃদ্ধ ও প্রতিবন্ধী এবং দারিদ্রসীমার নিচে বসবাসকারী মানুষের সমস্যার সমাধান খুব সহজে করা সম্ভব।’

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন ||

আরও সংবাদ ||

                            @  SOMOYBNGLAR # কোনো লেখাছবিভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য

.